বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিনকে নিয়ে ‘গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানা গেল

বহুল আলোচিত বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিন নুর পরশ ব্রিজ থেকে লাফিয়ে নিচে পড়ে আত্মহত্যা করেছেন। পারিবারিক সূত্র, অধিকতর তথ্য-প্রযুক্তির বিশ্লেষণ, সিসিটিভি ফুটেজসহ স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রের আলোকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে বলে র‍্যাব কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) রাতে কাওরান বাজার র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংস্থাটির লিগাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এসব তথ্য জানান।

কমান্ডার মঈন বলেন, ফারদিনের মাথায় যে আঘাতের কথা বলা হচ্ছে সেটা কতটুকু নিশ্চিত সে ব্যাপারে কিছু বলবো না। তবে ঝাঁপ দেওয়ার সময় ফারদিন পিলারের কাছেই পড়ে। তদন্ত সংশ্লিষ্ট সব বিশ্লেষকদের সঙ্গে কথা বলে এটা নিশ্চিত হওয়া গেছে। তিনি বলেন, ফারদিনের মৃত্যু রহস্য নিয়ে আমরা অনেক কাজ করেছি। যার যার সঙ্গে কথা বলা দরকার, চিকিৎসক, বিশেষজ্ঞ, অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, টেলিযোগাযোগ বিশেষজ্ঞসহ অনেকের সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা আমাদের ফাইন্ডিংস আমরা তদন্তকারী সংস্থাকে জানিয়েছি।

গত ৪ নভেম্বর রাজধানীর রামপুরা পুলিশ বক্সের সামনে বান্ধবী বুশরাকে নামিয়ে দেওয়ার পর নিখোঁজ হন ফারদিন নুর পরশ। এ ঘটনায় সন্তানের সন্ধান দাবিতে রামপুরা থানায় নিখোঁজের একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন ফারদিনের বাবা কাজী নুর উদ্দিন রানা। ৭ নভেম্বর শীতলক্ষ্যা নদীতে তার লাশ পায় নৌপুলিশ। ময়নাতদন্ত করা চিকিৎসক, তার পরিবার ও সহপাঠীদের দাবি, ফারদিনকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে র‌্যাব ও ডিবি তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে।

x

You May Also Like

About the Author: admin

Hey iam Golam Rabbani